Featured

এবার হাতের ইশারায় যেকোনো স্মার্ট ডিভাইসকে নিয়ন্ত্রণ করুন

বর্তমানে প্রায় সকল স্মার্ট ডিভাইসগুলো একে একে টাচস্ক্রিণ ফিচারে চলে এসেছে। মোবাইল ফোন থেকে শুরু করে এখন টিভি, ল্যাপটপের ডিসপ্লেগুলোতেও টা...

Saturday, 13 July 2019

একজন কালো মেয়ের চাকরির গল্প! জীবন পাল্টে যেতে পারে আপনারও

কৃষ্ণাঙ্গ একটি মেয়ে ছোট একটি চাকরির খোঁজে বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে ঘুরে বেড়াচ্ছে"!!!"
সব রেস্টুরেন্টের মালিকই একই কথা বলেছিলো, আমাদের এখানে কোনো লোকের প্রয়োজন নেই, অন্য কোথাও খুঁজে দেখো"!!!"
কৃষ্ণাঙ্গ মেয়েটা হতাশ হয়ে অন্য রেস্টুরেন্টে যায় এভাবে সে একদিন চাকরি পেয়ে গেলো একটি রেস্টুরেন্টে"!!!"
মালিক প্রথম দিনই তাকে বলে দিলো কখনো দেরি করে আসা যাবে না, তাহলে চাকরি বাতিল"!!!"
সবকিছু মাথায় রেখেই মেয়েটা কাজ করে যাচ্ছে রেস্টুরেন্টে"!!!"
খাবারের অর্ডার নিচ্ছে, তারপর খাবার পৌঁছে দিচ্ছে টেবিলে টেবিলে"!!!"

খাওয়া শেষ হওয়ার পর টেবিলে পরিস্কার করছে, কাজের কিছু অদক্ষতায় বকাও খাচ্ছে প্রায় প্রতিদিন"!!!"
কখনও হয়তো কোনো কাস্টোমারের সামনে থেকে কফির মগ নিতে গিয়ে গায়ে একটু কফি ফেলে দিয়েছে"!!!"
কাস্টোমার প্রচন্ড রেগে নালিশ করেছে মালিকের কাছে "!!!"
মেয়েটি হয়তো কাঁদো কাঁদো গলায় মালিককে সরি বলে কোনোভাবে পার পেয়ে গেছে"!!!"
গায়ের রঙ কালো বলে সম্ভবত রেস্টুরেন্টের অন্য ছেলেরা তাকে খুব একটা পাত্তাও দেয়নি"!!!"
একদিন সহকর্মীর জন্মদিনে মেয়েটি তার বাড়িতে গেলো, কেক কাটার পর যে খাবার দেয়া হলো, সহকর্মী লক্ষ্য করে দেখলো কৃষ্ণাঙ্গ মেয়েটি সেটা একদমই খেতে পারছে না"!!!"
অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করলো খাবারে সমস্যা কিনা.?"


মেয়েটি জবাব দিলো, না পেট ভরা তাই খেতে পারছি না"!!!"
কোনোদিন হয়তো রেস্টুরেন্টের অন্যান্য সহকর্মীদের সাথে কম দামি গাড়িতে করে কোথাও ঘুরতেও গিয়েছিলো মেয়েটি"!!!"
কম দামি গাড়িতে বেশ কষ্টও হয়েছে তার মুখ খুলে কিছু বলেনি কাউকে"!!!"
সবকিছু চেপে গেছে আর ভেবে নিয়েছে, আমি দেশের অন্য মানুষের মতোই মানুষ"!!!"
তারা পারলে আমি পারবো না কেনো.?"
দিন হয়তো এভাবেই যাচ্ছিলো একদিন তার সহকর্মীর কেউ একজন দেখলো যে, মেয়েটি রেস্টুরেন্ট থেকে বের হওয়ার পর আড়াল থেকে ছয়জন দীর্ঘদেহি মানুষ তাকে ঘিরে রাখে"!!!"
রেস্টুরেন্টে শুরু হলো গুঞ্জন, কানাকানি এভাবে ঘটনা চলে যায় সাংবাদিকদের কাছে"!!!"
বেরিয়ে আসে মেয়েটির পরিচয়! মেয়েটি আসলে আরকেউ নয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওবামার মেয়ে"!!!"
তারপর সংবাদ মাধ্যমগুলোতে ব্যাপক আলোড়ন তোলে এই খবরটি"!!!"
বিশ্ব জেনে যায়, মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ছোট মেয়ে সাশা ওবামা নিজের পরিচয় লুকিয়ে একটা রেস্টুরেন্টে কাজ করছেন"!!!"
গ্রীষ্মকালীন ছুটির ফাঁকে ম্যাসাচুসেটসের মার্থাস ভাইইয়ার্ড নামের একটি দ্বীপে অবস্থিত ওই রেস্টুরেন্টে কাজ নিয়েছেন তিনি"!!!"

অনেকদিন পর্যন্ত সাশার সহকর্মীরাও তাকে চিনতে পারেনি"!!!"
পরে রেস্টুরেন্ট ঘিরে সার্বক্ষণিক ছয়জন গোয়েন্দার অবস্থান বিষয়টিকে স্পষ্ট করে তোলে"!!!"
এ বিষয়ে বারাক ওবামার স্ত্রী মিশেল ওবামা বলেছিলেন, সন্তানদেরকে একটা বয়সের পরে রাজকীয় বিলাসিতা ছাড়তে বাধ্য করেছি কারণ তাদের সাধারণ মানুষের সাথে মিশতে হবে, অন্য দশটা সাধারণ মানুষের মতোই তাদের বাঁচতে শিখতে হবে"!!!"
একজন প্রেসিডেন্টের কন্যা হওয়া সত্ত্বেও সাশা ওবামা নিতান্ত একটা রেস্তোরাঁয় পরিসেবিকার কাজ করতে লজ্জাবোধ করে নি! অথচ আমরা মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম নিয়েও যেমন তেমন কাজ করতে লজ্জাবোধ করি! আত্মমর্যাদা কাজ করলে কমে না বরং বাড়ে"!!!"
কোন কাজ কখনো ছোট হয়না, সত্য বলতে গেলে ছোট আমাদের চিন্তাভাবনা.....
আমাদের নিজেদের চিন্তা ভাবনা ও দৃষ্টভঙ্গি বদলানো উচিত, বদলাবে সমাজ, বদলাবে দেশ.......!!!"

No comments:

Post a Comment