Featured

এবার হাতের ইশারায় যেকোনো স্মার্ট ডিভাইসকে নিয়ন্ত্রণ করুন

বর্তমানে প্রায় সকল স্মার্ট ডিভাইসগুলো একে একে টাচস্ক্রিণ ফিচারে চলে এসেছে। মোবাইল ফোন থেকে শুরু করে এখন টিভি, ল্যাপটপের ডিসপ্লেগুলোতেও টা...

Monday, 20 May 2019

"পাঠাও" এর নতুন ক্যাম্পেইন "উঠাও"

দেশের বৃহত্তম অন-ডিমান্ড ডিজিটাল প্লাটফর্ম পাঠাও লিমিটেড পুনরায় নিয়ে এসেছে বহুল আলোচিত “উঠাও” ক্যাম্পেইন। উঠাও ক্যাম্পেইনের আওতায় গত বছর ঈদে তিনজন ভাগ্যবান বিজয়ী হেলিকপ্টারে করে বাড়িতে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল।
এই বছর ঈদের আনন্দের মাত্রাকে বহুগুনে বাড়িয়ে দিতে পাঠাও ৪টি হেলিকপ্টার রাইড, নভোএয়ারের ৮টি এয়ার টিকেট এবং ৬টি স্যামসাং গ্যালাক্সি এ৫০ স্মার্টফোন দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।


ক্যাম্পেইনটিতে পাঠাও এর সকল ইউজার, রাইডার এবং ক্যাপ্টেনরা অংশগ্রহণ করতে পারবেন। ক্যাম্পেইনটি চলবে আগামী ২৮ মে, ২০১৯ পর্যন্ত। ক্যাম্পেইনটিতে পাঠাও এর সহযোগী পার্টনার হিসেবে রয়েছে স্যামসাং এবং নভোএয়ার।
ক্যাম্পেইনটিতে অংশগ্রহনের জন্য পাঠাও এর ইউজার, রাইডার এবং ক্যাপ্টেন সবাইকে নির্দিষ্ট কিছু টার্গেট পূরণ করতে হবে। টার্গেট পূরণ করতে আগামী ২৮ মে, ২০১৯ এর মধ্যে ইউজারদের কমপক্ষে ২০টি রাইড, রাইডারদের কমপক্ষে ৬০টি ট্রিপ, ক্যাপ্টেনদের কমপক্ষে ৪০টি ট্রিপ দিতে হবে।
সেখানে সেরা চারজন বিজয়ী পাবেন ঈদে বাড়ি যাওয়ার জন্য ফ্রি হেলিকপ্টার রাইড। আরও চারজন পাবেন দুটি করে নভোএয়ারের এয়ার টিকিট এবং পরবর্তী ছয়জন বিজয়ী পাবেন স্যামসাং গ্যালাক্সি এ৫০ স্মার্টফোন।
এ প্রসঙ্গে পাঠাও সিইও হুসেন এম ইলিয়াস বলেন, “পাঠাও সবসময় সহজ, দ্রুত এবং সুবিধাজনক রাইড শেয়ারিং সার্ভিস প্রদানের কথা চিন্তা করে। উঠাও এর চিন্তা গতবছর আমাদের মাথায় আসে এবং গত বছর এই ক্যাম্পেইনটি সবার মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলে। তাই এই বছরও আমরা পুনরায় উঠাও ক্যাম্পেইনটি নিয়ে এসেছি এবং আমাদের সকল ব্যবহারকারীদেরকে ধন্যবাদ জানাতে আমরা আগের চেয়ে অনেক বেশি উপহার দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

প্রসঙ্গত, পাঠাও বাংলাদেশের বৃহত্তম রাইড শেয়ারিং, ই-কমার্স ও ফুড ডেলিভারি সেবা প্রদানকারী ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম। দেশব্যাপী হাজার হাজার মানুষের জন্য নতুন কর্মসংস্থান তৈরির পাশাপাশি সামগ্রিকভাবে জীবন যাত্রার মান বৃদ্ধিতে পাঠাও কার্যকরী ভূমিকা রেখে চলেছে।
নিজেদেরকে দেশের সর্ববৃহৎ ই-কমার্স ডেলিভারি কোম্পানি হিসেবে প্রতিষ্ঠার পর পাঠাও যাতায়াত সেবায় নতুন দিগন্ত উন্মোচিত করেছে। পাঠাও মোটরবাইক, গাড়ির নানামুখী ব্যবহারের পর এবার ফুড সার্ভিসের মধ্য দিয়ে প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে বাংলাদেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।
পাঠাও বাংলাদেশ সরকারের রাইড শেয়ারিং নীতিমালা ২০১৮ অনুমোদিত প্রথম রাইড-শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম। বর্তমানে পাঠাও দৈনন্দিন জীবনের চাহিদা মেটাতে একটি ডিজিটাল লাইফ স্টাইল প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে।

No comments:

Post a Comment